Pratice Humility : নম্রতার অনুশীলন

মূল্যবোধ : সঠিক আচরণ

সহ মূল্যবোধ : নম্রতা

Image result for soldiers images clip art

 

বহু বছর আগে একজন অশ্বচালকের  কয়েক জন সৈনিকের  কয়েকজন সৈনিকের সাথে দেখা  হয় যারা একটা ভারী গাছের গুঁড়ি সরাতে চেষ্টা করছিল  কিন্তু সফল  হতে পারছিল না  . সেনা বাহিনীর আরেকজন কর্মচারী সামনেই দাঁড়িয়ে দেখছিল , যখন বাকিরা খুব কষ্ট করছিল . অশ্বচালক জিজ্ঞেস করল কর্মচারীকে যে সে কেন সাহায্য করছে না , এই কথা শুনে কর্মচারী উত্তরে বলে : ” আমি সেনা বাহিনীতে একজন  কর্মী(corporal) , আমি শুধু নির্দেশ দিই.”  অশ্বচালক নেমে গিয়ে ,সৈনিকদের কাছে যায় এবং যখন তারা গাছের গুঁড়িটাকে তুলছিল , তখন সে তাদেরকে সাহায্য করে.তার সাহায্য নিয়ে , সৈনিকরা গুঁড়িটাকে সরাতে পারে .

অশ্বচালক ধীরে ঘোড়াতে উঠে যখন চলে যাচ্ছিল তখন সে সেনা বাহিনীর ওই  কর্মীকে  বলল যে, “পরের বার তোমার সৈন্যদের যখন সাহায্যের দরকার হবে  , সেনাপতিকে ডেকে  পাঠাবে .”

সে চলে যাবার পরে ,  সেনা বাহিনীর ওই  কর্মী (corporal) এবং তার সৈন্যরা জানতে পারে, যেটা তাদের কাছে অবিশ্বাস্য লাগে , যে অশ্বচালক আসলে ছিল জর্জ ওয়াশিংটন.

শিক্ষা: 

বার্তাটা খুবই পরিষ্কার . সাফল্য এবং নম্রতা পাশাপাশি চলে . যখন অন্যরা তোমার ঢাক পেটায়, তখন তার আওয়াজটা  অনেক দূর পর্যন্ত পৌঁঁছায়.একবার ভেবে দেখো — সরলতা এবং নম্রতা হলো মহত্ত্বের দুটো নিদর্শক ছাপ. নম্রতা মানে এই নয় যে স্বয়ং হীনতার আচরণ .

http://saibalsankaarbangla.wordpress.com

https://www.facebook.com/moralvaluestoriesbengali/ (Naitik Kahini Samagra )

Translator  ( অনুবাদক ) —   Sinchita.

The Sage and the Stationmaster— Speaking the truth ঋষি এবং স্টেশন মাস্টার— সত্যের কথন

মূল্যবোধ — সত্য

সহ  মূল্যবোধ — ন্যায়পরায়ণতা , পরিবর্তন

 

Image result for rishi

 

 

 

হিমালয় থেকে একজন মহান ঋষি, তাঁর শিষ্যদের সাথে , পর্বত পথ অতিক্রম করে শহরে আসেন. ওই শহরে রেলের একজন স্টেশন মাস্টার ঋষির দেবত্ব দেখে মুগ্ধ হয় , মুনিকে অনুরোধ করেন তাকে আশীর্বাদ করতে, তাকে অনুশীলন করবার জন্য কিছু দিতে ,যেটা সে নিখুঁতভাবে পালন করবার প্রতিশ্রুতি নেয় .

শিষ্য বলল ঋষিকে , ” প্রভু , এই পার্থিব মানুষরা কক্ষুনো আপনার শিক্ষা অনুসরণ করবে না. অনুগ্রহ করে এদের উপদেশ দেবেন না. “ঋষি জানতেন যে ওই বিভাগে  স্টেশন মাস্টার এবং তার সহকর্মীরা সবাই দুর্নীতিগ্রস্থ , কিন্তু সেই মূল্য অনুযায়ী স্টেশন মাস্টারকে উপদেশ দেবার মনস্থির করলেন.তিনি তারপর একপাশে স্টেশন মাস্টারকে ডেকে উপদেশ দিলেন যে সে যেন কোন দিন আর মিথ্যা  কথা না বলে এবং এই বলে নিজের পথে চলে গেলেন.

স্টেশন মাস্টার গম্ভীরভাবে ঋষির কথাগুলো পালন করে এবং বিশ্বাসের সাথে তাঁর উপদেশ মানবে বলে মনস্থির করে . ঠিক পরের দিন একজন  তদন্তকারী কর্মকর্তা স্টেশন মাস্টারের সাথে দেখা করতে আসে , তাদের অফিসে দুর্নীতির অভিযোগে কিছু তদন্ত করতে আসে .

স্টেশন মাস্টার স্বীকার করে কর্মকর্তার কাছে যে তার বিভাগ এবং সে নিজে ঘুষ নেওয়ার জন্য দোষী কিন্তু ইদানিং সে  এটা করা বন্ধ করে দিয়েছে . তার অফিসের সহকর্মীরা এই স্বীকারোক্তির জন্য  রেগে  যায় এবং তদন্তকারী কমিটিকে বলে যে স্টেশন মাস্টার আসলে দুর্নীতিগ্রস্ত এবং তার আদেশেই এই সব কাজ কর্ম করা হয়েছে.

ভুল পথে জীবন চালাবার  স্বীকারোক্তির জন্য স্টেশন মাস্টারের চাকরি চলে যায় এবং তার জেল হয় . এই একই কারণে তার স্ত্রী এবং পুত্র জীবন থেকে সরে যায়. তার মকদ্দমাটাও অনেকদিন ধরে কোর্টে স্থগিত থাকে  ,অবশেষে একদিন আসে যখন মকদ্দমার লড়াইয়ের জন্য তাকে একজন উকিল নিযুক্ত করতে বলা হয় .স্টেশন মাস্টার বলল জজসাহেব কে  যে তার কোন উকিলের দরকার নেই বরং তার ইচ্ছা যে  সে শুধু তথ্যগুলোর বিবৃতি দেবে.সে জজসাহেব কে ঋষির উপদেশের কথা বলল এবং কীভাবে সে সেটার পালন করছে . পরে জজসাহেব তাকে কাছারিতে ডাকেন এবং ঋষির বিষয়ে জিজ্ঞেস করেন .জজসাহেব  খুব খুশি হন এই জেনে যে, যে  ঋষির উল্লেখ স্টেশন মাস্টার করছে , সে আসলে তার গুরু . জজসাহেব তাকে এই মামলা থেকে খালাস করে দেয় .

এই ঘটনার প্রায় একমাস বা আরো কিছু পরে , স্টেশন  মাস্টার আচমকা একটা বার্তা পায় রেল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে , সেখানে নির্দিষ্ট করা ছিল যে সে দশ লাখ টাকা পুরস্কার পাচ্ছে ক্ষতিপূরণ হিসাবে একটা জমির বিনিময়ে  যেটার মালিক ছিল তার বাবা , এবং যেটা রেল কতৃপক্ষ এখন অর্জন করে নিয়েছে.স্টেশন মাস্টার , নিজের জন্য কিছু না রেখে , সম্পূর্ণ টাকাটা তার পরিবারকে দিয়ে দেয় . তাদের বিদায় জানিয়ে  চলে যায় .

সে যখন তার জীবনের অতীতের ঘটনাগুলো খতিয়ে দেখতে শুরু করে ,সে লক্ষ্য করল যে সামান্য কয়েক মাসের জন্য সে সততার পথে চলে ,বিরাট অঙ্কের টাকা পুরস্কার পায়. সে বিস্ময়ে ভাবলো যে কি হবে যদি সে বাকি জীবনটা সত্যের পথে চলে .সে মনস্থির করল যে সে  সেই ঋষির সাথে থাকবার জন্য হিমালয়ে যাবে এবং বাকি জীবনটা সেখানেই কাটাবে.

শিক্ষা: ন্যায়পরায়ণতা হলো সেরা নীতি .মহান  ঋষি এবং গুরুরা  মহান মূল্যবোধের শিক্ষা দেন .তাঁদের উপদেশ যদি নেওয়া হয় এবং সেই মত কাজ করা হয় তাহলে আমাদের মধ্যে পরিবর্তন দেখা যাবে .

 

http://saibalsankaarbangla.wordpress.com

https://www.facebook.com/moralvaluestoriesbengali/ (Naitik Kahini Samagra )

Translator  ( অনুবাদক ) —   Sinchita.

Why do we shout when angry?রেগে গেলে আমরা কেন চেঁচিয়ে উঠি ?

মূল্যবোধ : অহিংসা , শান্তি

সহ মূল্যবোধ : নিস্তব্ধতা , শান্তিপূর্ণshout

 

 

 

 

 

একজন মুনি এবং তার শিষ্যরা পবিত্র নদী গঙ্গার উদ্দ্যেশে তীর্থযাত্রা করেন যাতে তাঁরা শুদ্ধ  জলে ডুব দিতে  পারেন.  তাঁরা গঙ্গার তীরে যখন উপস্থিত , তাঁরা লক্ষ্য করেন যে একটা পরিবারের কয়েকজন সদস্য জোড় গলায় একে অপরের প্রতি রাগ প্রকাশ করছে. মুনি তার শিষ্যদের দিকে তাকিয়ে হাসলেন এবং জিজ্ঞেস করলেন :

“মানুষ রেগে গেলে কেন একে অপরের ওপরে  চেঁচিয়ে ওঠে  ? ”

শিষ্যরা কিছুক্ষণ চিন্তা করল, তাদের মধ্যে একজন উত্তরে বলল, “কারণ আমরা আমাদের শান্তিপূর্ণ ভাবটাকে হারিয়ে ফেলি, আমরা  চেঁচিয়ে উঠি .”

‘ কিন্তু, কেন একজন চেঁচাবে যখন অপর জন তার পাশেই রয়েছে ?তোমার যা বলার দরকার সেটা তুমি অপর জনকে মৃদু ভঙ্গিতেও বলতে পারো.’ মুনি জিজ্ঞেস করলেন.

শিষ্যরা নানা ধরণের উত্তর দিল কিন্তু কোনোটাই সন্তোষজনক হলো না .

শেষ পর্যন্ত মুনি কোমল  ভাষায়  ব্যাখা দিলেন .

” যখন দু জন ব্যক্তি একে অপরের প্রতি রেগে যায়, তাদের হৃদয়ের মধ্যে দুরত্বতা অনেক হয়ে যায়.সে দুরত্বটা ঢেকে তাদের  জোড় গলায় কথা বলা প্রয়োজন যাতে তারা একে অপরকে শুনতে পায়. যত বেশি রাগ ,তত জোড়ে তাদের  চেঁচিয়ে কথা বলতে হয়  যাতে তারা একে অপরের কথা শুনতে পায়, ওই বিশাল দুরত্বটাকে ঢেকে দিয়ে .

কি হয় যখন দু জন ব্যক্তি একে অপরকে ভালবাসে ?তারা একে অপররের প্রতি রেগে গিয়ে কথা বলে না কিন্তু নরম স্বরে কথা বলে ,কারণ তাদের হৃদয়ের অবস্থান খুব নিকট .তাদের মধ্যে দূরত্ব বলা যেতে পারে একেবারে অনুপস্থিত অথবা খুব কম …”

মুনি বলে চললেন , ” যখন তারা আরো গভীরে একে অপরকে ভালবাসে, তখন কি হয় ?তারা কথা বলে না, শুধু  ফিসফিস  করে এবং ভালবাসায় তারা একে অপরের আরো নিকট হয়ে যায়.শেষে, তাদের ফিসফিস করে কথা বলার প্রয়োজন পরে না কারণ তারা একে অপরের দিকে তাকিয়ে থাকে এবং   নিকট দু জন ব্যক্তির  মধ্যে এরকমটা তখন হতে পারে যখন একজন আরেকজনকে ভালবাসে .”

তিনি তাঁর শিষ্যদের দিকে তাকালেন এবং বললেন,

” তাই তুমি যখন তর্ক করবে তোমার হৃদয়কে  দূরে যেতে দিও না . এমন কোন কথা বোলো না যেটা একে অপরের মধ্যে দূরত্বকে আরো বাড়িয়ে দেয়, নয়ত এমন একদিন আসবে যেদিন দূরত্ব এমন বেড়ে যাবে যে পুনর্মিলন করা আর সম্ভব হবে না! ”

শিক্ষা:

রেগে গেলে চুপ করে থাকা হলো সর্বোত্তম উপায় . সেই সময় যে কথাগুলো বলি সেটা অন্যের ওপর এমন চাপ ফেলে যাই যেটা সংশোধন করা সম্ভব হয় না.রাগ নিজেদেরকে ভালোবাসার ব্যক্তির থেকে দূরে সরিয়ে দেয়.

http://saibalsankaarbangla.wordpress.com

https://www.facebook.com/moralvaluestoriesbengali/ (Naitik Kahini Samagra )

Translator  ( অনুবাদক ) —   Sinchita.

Action speaks greater than words— কথার থেকে বৃহত্তর হলো কর্ম .

 

stone

মূল্যবোধ : সঠিক আচরণ

সহ মূল্যবোধ : উদ্যোগ, কর্ম

একদিন একজন কৃষক একটা ছোট নগরের রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিল যখন সে দেখে যে পথের মাঝখানে একটা বর পাথর রাখা আছে. সে অভিযোগ করে বলল  যে “কে এত  অসাবধান  যে এতো বড়একটা পাথর রাস্তায় রেখে দিয়েছে ?কেউ  কেন এটাকে সরায় না ?” সে অভিযোগ করতে করতে চলে গেল .

পরের দিন , গোয়ালার সাথে একই জিনিস হলো .সেও গজগজ করতে করতে চলে গেল কিন্ত পাথর টাকে সেরকম ভাবেই রেখে গেল .

তারপর একদিন, একজন শিক্ষার্থী এই পাথরটার সম্মুখীন হয় . ভয় পেয়ে যে কেউ হয়ত এটার ওপরে পড়ে গিয়ে আঘাত পাবে , এটাকে সারাবার সিধান্ত নিল .সে অনেকক্ষণ ধরে এবং শক্তহাতে একাই এটাকে সরালো এবং অবশেষে পাথরটা রাস্তা থেকে সরাতে সক্ষম হলো . সে ফিরে এসে দেখল যে যেখানে পাথরটা ছিল সেখানে একটা কাগজের টুকরো পড়ে আছে.

সে কাগজটা তুলল এবং সেটাকে খুলল. ভেতরে লেখা আছে , ” তুমি হলে এই রাষ্ট্রের সত্য সম্পদ .”

দু ধরণের মানুষ আছে .

যারা কথা বলে এবং যারা কাজ করে .

যারা কথা বলার ব্যক্তি তারা শুধু কথাই বলে, অন্যদিকে যারা কাজ করার ব্যক্তি তারা কাজই করে .

 

শিক্ষা: আমরা যদি কোন কিছুর সাথে জড়িত থাকতে না চাই , তাহলে সে বিষয়ে  সমলোচনা  করবার অধিকারও আমাদের নেই . আমাদের সেই পরিবর্তনটাতে  পরিণত হতে হবে যেটা আমরা এই বিশ্বে দেখতে চাই . এই পৃথিবীতে যে জায়গাটা আমরা দখল করে আছি সেই ভাড়াটা আমরা দিই সমাজের প্রতি সেবা করে .

http://saibalsankaarbangla.wordpress.com

https://www.facebook.com/moralvaluestoriesbengali/ (Naitik Kahini Samagra )

Translator  ( অনুবাদক ) —   Sinchita.

 

 

The goldfish bowl —গোল্ডফিশের পাত্র

 

মূল্যবোধ : সঠিক আচরণ

সহ মূল্যবোধ : অন্যের জন্য চিন্তা করা

Image result for goldfish

 

একজন ন- বছরের বাচ্চা স্কুলের টেবিলে বসে ছিল , আচমকা তার পায়ের পাতার কাছে  জলে ভরে যায় এবং তার প্যান্টের সামনেটা ভিজে যায়. তার মনে হলো তার হৃদয় যেন এখনি বন্ধ হয়ে যাবে কারণ সে সম্ভবত কল্পনা করতে পারছে না যে কিভাবে এরকম হলো .

এরকম আগে কখনো হয়নি এবং যখন ছেলেরা  এটা জানতে পারবে সে শেষ অব্দি কোনো কিছু শোনার অবস্থাতে থাকবে না .যখন মেয়েরা এটা জানতে পারবে ,সে যতদিন বাঁচবে তারা আর তার সাথে কথা বলবে না .

ছেলেটার মনে হলো তার হৃদয় যেন এক্ষুনি বন্ধ হয়ে যাবে , সে মাথা নিচু করে প্রার্থনা করল —

” হে ভগবান, এটা একটা বিশেষ অবস্থা ! আমার এখন সাহায্যের দরকার !এখন থেকে পাঁচ মিনিট পরে আমার একদম  মরণাপন্ন অবস্থা হবে .”

সে প্রার্থনা শেষ করে  তাকাতেই দেখে যে শিক্ষিকা আসছেন  এবং তাঁঁর চোখের দৃষ্টি থেকে মনে হচ্ছে যেন সে  ধরা পরে গেছে .

শিক্ষিকা যখন  তার দিকে হেঁটে আসছিলেন , একজন সহপাঠী যার নাম সুসিই একটা জল ভর্তি গোল্ডফিশের পাত্র ধরে আনছিল .সুসিই  শিক্ষিকার  সামনে পড়ে যায় এবং অদুভূত ভাবে জলের পাত্রটা ছেলেটার কোলে ফেলে দেয় .

ছেলেটা  রেগে যাবার ভান করে , তবে এই পুরো সময়টা সে শুধু নিজেকে বলে : ” ধন্যবাদ, ভগবান ! ধন্যবাদ, ভগবান !”

আশ্চর্য্য ভাবে , উপহাসের বিষয়বস্তুর বদলে , ছেলেটা সহানুভূতির বিষয়বস্তু  হয়ে যায় . শিক্ষিকা তাকে তাড়াতাড়ি নিচে নিয়ে যান  এবং অন্য হাফ প্যান্ট দেন  পরবার জন্য যে সময়ে তার নিজের প্যান্টটাকে শুকোতে দেওয়া হয় . বাকি শিক্ষার্থীরা হাঁটু হয়ে টেবিলের আশপাশটা পরিষ্কার করতে শুরু করে. সহানুভূতিটা  অপূর্ব. কিন্তু জীবনের যেমন  পরিস্থিতি , যে উপহাসটা তার  উদ্দেশে   হবার  কথা ছিল সেটা এখন অন্য কারুর ওপরে পরিবর্তন হয়ে গেছে — সুসিই .

সে সাহায্য করতে চাইছিল , কিন্ত সবাই তাকে চলে যেতে বলল .” তুমি অনেক করেছ , বোকা ! ” শেষে, দিন যখন শেষ হতে যায় , তারা যখন বাসের জন্য অপেক্ষা করছিল , ছেলেটা সুসিইর  কাছে হেঁটে গিয়ে ফিশফিশ করে বলল , “তুমি এটা জেনেশুনে করেছিলে , তাই নয় কি ? ”

সুসিই  ফিশফিশ করে উত্তর দিল , “আমিও একবার আমার জামা ভিজিয়ে ফেলেছিলাম . ”

শিক্ষা :

ভাল করবার জন্য আমাদের চারপাশে সর্বদা যে সুযোগগুলো আছে সেগুলো দেখবার জন্য ভগবান যেন আমাদেরকে  সাহায্য করেন. সর্বদা সাহায্য করবে , কোন সময় দুঃখ দেবে না. সবসময় মানুষকে সাহায্য করতে চেষ্টা করবে এবং প্রধাণত যদি তুমি একই ধরণের সমস্যার সম্মখীন হয়ে থাকো.

http://saibalsankaarbangla.wordpress.com

https://www.facebook.com/moralvaluestoriesbengali/ (Naitik Kahini Samagra )

Translator  ( অনুবাদক ) —   Sinchita.